peperonity.net
Welcome, guest. You are not logged in.
Log in or join for free!
 
Stay logged in
Forgot login details?

Login
Stay logged in

For free!
Get started!

Text page


new.bangla.choti.peperonity.net

এক রাতের ফল

সকালে টিভি খুলতেই খবর শুনলাম আজ এস এস সি ফাইনাল পরিক্ষার রেজাল্ট বের হবে, গত কয়েকদিন হতে শুনে আসলে ও আজকের মত চঞ্চলতা জাগেনি। ছেলেটা লেখাপরায় খুব ভাল, তার শিক্ষকমন্ডলীর কাছে সে খুব স্নেহভাজন। শিক্ষকদের ধারনা সে গোল্ডেন এ+ পাবেই।
নাহিদ আমার একমাত্র ছেলে, বয়স ১৫ ছুই ছুই, বয়স অনুপাতে দেহের গঠন টা একটু বড়। চেহারায় খুবই মায়াবী শুধু রংটা একটু শ্যামলা তবে কালো নয়। রেজাল্ট বের হবার কথা শুনার পর হতে নাওয়া খাওয়া ছেরেই দিয়েছে, না জানি খারাপ খবর শুনলে ছেলেটা কি করে বসে। বেলা দুইটার আগে নাকি রেজালট ইন্টারনেটে পাওয়া যাবেনা। তাই সে গুম ধরে দুইতার অপেক্ষায় ঘরে বসে আছে। কিন্তু বেলা দেড়টার দিকে তার এক বন্ধু এসে খবর দিল রাশেদ গোলদেন এ+ পেয়েছে । রাশেদ দৌড়ে এসে আমাকে গড়িয়ে ধরল , আমি একমাত্র ছেলের কৃতিত্বে তাকে বুকে জড়িয়ে ধরে খুশিতে কেঁদে ফেললাম। আগে থেকে ঘরে থাকা মিষ্টি থেকে তার বন্ধুকে মিষ্টি খাওয়ালাম।
আজ প্রচন্ড খুশির বানের সাথে সাথে অতীতের কিছু দুঃখ মনের ভিতর ভেসে উঠল। যা আমার ছেলে জানলে আমাকে প্রচন্ড ঘৃনা করবে।
মা বাবার একমাত্র সন্তান আমি। আমার জম্মের পর তাদের আর কোন সন্তান হয়নি। মা বাবা মাকে ভীষন আদর করতেন, যদিও আমি কন্যা সন্তান ছিলাম, মা বাবাকে পুত্র সন্তানের জন্য কখনো আপসোস করতে দেখেনি, বরং আমাকে পুত্র সন্তানের মত মানুষ করতে চ্চেয়েছ।কিন্তু তাদের চাহিদা মত জীবনকে গড়তে আমি সমর্থ হয়নি।
আমি সুন্দরী ছিলাম সে কথা বলতে চাইনা, কিন্তু এলাকার পরিচিত এবং আত্বীয় স্বজন সবাই আমাকে সুন্দরী বলত বিধায় নিজের মনে নিজেকে সুন্দরী বলেই ভাবতাম। এস এস সি স্টার মার্ক নিয়ে বিজ্ঞান গ্রুপ থেকে প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হয়ে স্থানীয় ডিগ্রী কলেজে এইচ এস সি তে ভর্তি হই। কলেজে বিভিন্ন ছেলে বন্ধু প্রেম নিবেদন করলেও কারো প্রেমে সারা দিতে পারিনি , পাছে মা বাবার মনে ব্যাথা পাবে ভেবে সবাই কে এড়িয়ে যেতেম।এইচ এস সি প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হয়ে মা বাবার আশা পুরনের জন্য দাক্তারী পরীক্ষায় অংশ নিলাম কিন্তু মা বাবার সে আশা পুরন করতে ব্যর্থ হলাম। নিজের মনে হতাশা নেমে এল, সিদ্ধান্ত নিলাম আর লেখা পড়া করবনা।মা বাবা অনেক বুঝিয়ে হাল ছেড়ে দিলেন।
লেখা পড়া বন্ধ হওয়ার সাথে সাথে তারা আমার বিয়ের ব্যাপারে ঊঠে পড়ে লাগল, আমিও তাদের মতে সাঁই দিলাম।এক মাসের মধ্যে আমার বিয়ের কথা ...
Next part ►


This page:




Help/FAQ | Terms | Imprint
Home People Pictures Videos Sites Blogs Chat
Top
.